আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত সেমিনারে চুয়েটের উপাচার্য ” বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যয় কমাতে নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিকল্প নেই “

Share the post

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে ইনটিগ্রেশন অফ রিনিউওয়াবল এনার্জি ইন মডার্ন পাওয়ার গ্রিড: স্টাবিলিটি এন্ড ইন্টারএকশন ইস্যুস এন্ড পসিবল সলিউশন (Integration of Renewable Energy in Modern Power Grid: Stability and Interaction Issues and Possible Solution) শীর্ষক এক সেমিনার গত (০২ জানুয়ারি, ২০২২) রবিবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় (চুয়েট) এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নরওয়ের ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজির ইপিই বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আমিন। আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন এর সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী এস এম শহিদুল আলম এর সঞ্চালনায় আয়োজিত এই সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কারিগরী আলোচনা ও সেমিনার উপ-কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী জামাল উদ্দিন আহমেদ এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান (এডমিন. প্রফেশ. এন্ড এসডব্লিউ) প্রকৌশলী দেওয়ান সামিনা বানু। সেমিনারে আরো বক্তব্য প্রদান করেন কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোহাম্মদ হারুন, প্রকৌশলী মনজারে খোরশেদ আলম, প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী। এছাড়াও মূল প্রবন্ধকারের পরিচিতি তুলে ধরেন কারিগরী আলোচনা ও সেমিনার উপ-কমিটির সদস্য-সচিব ড. প্রকৌশলী এএসএম সায়েম।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০৪১ সালে উন্নত দেশে উন্নীত হওয়ার পথে এবং দেশ অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশীল হওয়ার জন্য অন্যতম চালিকা শক্তি হলো বিদ্যুৎ। ভবিষ্যতে এটি স্থিতিশীল হতে হবে এবং প্রায় ৪০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রয়োজন হবে। দেশের পরিবেশ রক্ষায় এবং বিদ্যুতের ঘাটতি মেটাতে নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিকল্প নেই বলে উপাচার্য মন্তব্য করেন। তিনি দীর্ঘ মেয়াদের জন্য স্থিতিশীল ও সাশ্রয়ী বিদ্যুৎ পেতে হলে বায়ুচালিত ও সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট সিস্টেম চালুর পরিকল্পনার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়াও তিনি বলেন, এই পদ্ধতিতে উৎপাদিত বিদ্যুৎ বাসা বাড়িতে ব্যবহার করা হলে অধিক উপকৃত হওয়া যাবে। তিনি নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদনে উৎপাদন ব্যয় কমাতে আরো অধিক গবেষণার জন্য তরুণ গবেষকদের প্রতি অনুরোধ জানান।
মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করে মোহাম্মদ আমীন বলেন, বাংলাদেশ উন্নত দেশে উন্নীত হতে হলে বিদ্যুতের ব্যবহার প্রায় ৫৬ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। তিনি এই ঘাটতি মেটাতে ভবিষ্যতে পরিবেশবান্ধব ও আধুনিক প্রযুক্তিতে নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রস্তুতি গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করেন। মূল প্রবন্ধকার এইচভিডিসি সিস্টেমে উৎপাদন ব্যয় কমিয়ে কিভাবে নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যায় এবং এই পদ্ধতি স্থিতিশীল করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন সমস্যাসমূহ ও সম্ভাব্য সমাধান বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত পাওয়ার প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে উপস্থাপন করেন।
সভাপতির বক্তৃতায় কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন বলেন, আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র দেশের সমসাময়িক ও জনসম্পৃক্ত চলমান বিভিন্ন সমস্যা বিষয়ে সেমিনার আয়োজন করে যাচ্ছে। তিনি এই সুবিধা গ্রহণ করে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপনের জন্য দক্ষ ও পেশাদার প্রকৌশলীদের প্রতি অনুরোধ জানান।
প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ গ্রহণ করেন প্রকৌশলী মোঃ মকবুল হোসেন, প্রকৌশলী মোহাং আবুল হাশেম, প্রকৌশলী মোঃ মোক্তাদির, প্রকৌশলী মোঃ শহিদুল্লাহ ও প্রকৌশলী এস এম শামসুদ্দি খালেদ। মূল প্রবন্ধকার মোহাম্মদ আমীন প্রকৌশলীদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন এবং পরামর্শ সম্পর্কে তাঁর অভিমত তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও মূল প্রবন্ধকারকে পুষ্পস্তবক এবং ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। সেমিনারে বিভিন্ন সরকারী প্রতিষ্ঠানের উর্ধতন প্রকৌশলীরাসহ কেন্দ্রের বিপুল সংখ্যক প্রকৌশলী সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Releated