বিদ্রোহী প্রার্থীদের সরে যেতে শেষ মুহূর্তের দফারফা

Share the post

চট্টগ্রাম : আজ মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। তাই চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা সরে যাওয়া বিষয়ে শেষ মুহূর্তের দর কষাকষি চলছে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে। দলের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ‍উপস্থিতিতে চট্টগ্রাম শীর্ষ আওয়ামী লীগ নেতারা সার্কিট হাউজে বসে বিষয়টি মনিটরিং করছেন বলে জানা গেছে।

রোববার (৮ মার্চ) দুপুর আড়াইটার দিকে এ রিপোর্ট লেখাপর্যন্ত সার্কিট হাউস থেকে বিদ্রোহীদের সাথে সর্বাত্মক যোগাযোগের চেষ্টা চলছিল। বিদ্রোহী প্রার্থীরা সেখানে উপস্থিত না থাকলেও তাদের সাথে টেলিফোনে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ করে আজকের মধ্যেই মনোনয়ন প্রত্যাহারের চেষ্টা ও তোড়জোড় চালাচ্ছেন চট্টগ্রামের নেতাদের।

এর আগে রোববার সকাল সাড়ে ৯টায় বিমান বন্দরে অবতরণ করে ওবায়দুল কাদের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণের অগ্রগতি দেখতে পতেঙ্গায় যান। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন। এসময় বিদ্রোহী প্রার্থীর বিষয়টা বড় কোনো সমস্যা নয় বলে মত দেন।

এদিকে, শনিবার রাতে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের মধ্যস্থতায় বিদ্রোহী প্রার্থিতা প্রত্যাহার বিষয়ে যে অগ্রগতি হয় মুলত সেটিই আজকে ফলোআপ ও মনিটরিং করা হচ্ছে। এছাড়াও শনিবার বিকেলে নগর আওয়ামী লীগের ৭ মার্চের অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় আ জ ম নাছির উদ্দীন বিদ্রোহী প্রার্থীদের সরে যাওয়ার নির্দেশ দেন।

সার্কিট হাউসে উপস্থিত চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে একুশে পত্রিকাকে বলেন, মূলত শনিবার রাতে মোশাররফ ভাইয়ের নন্দনকাননের বাসায় বিদ্রোহী প্রার্থিতা প্রত্যাহারের বিষয়ে মোশাররফ ভাই ও নাছির ভাইয়ের মধ্যস্ততায় বিদ্রোহী প্রার্থীদের সরে যাওয়ার বিষয়ে বেশ অগ্রগতি হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ভাইয়ের উপস্থিতিতে সেই অগ্রগতিটাই এখন এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় ও চট্টগ্রামের শীর্ষ নেতৃত্বের আশাবাদ, আজ মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিনে বেশিরভাগ বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেবেন। যদি কেউ প্রত্যাহার না করে, পরবর্তীতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে তাদেরও নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নিতে পারে হাইকমান্ড- এমন আলোচনায় চলছে বলে জানান মফিজুর রহমান।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক আহমদ হোসেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ  জ ম নাছির উদ্দীনসহ চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ, মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী উপস্থিত আছেন চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে।

তবে সাধারণ নেতাকর্মীদের কাউকে সার্কিট হাউজের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সাধারণ নেতাকর্মীরা গেইটের বাইরে অপেক্ষা করছিলেন সকাল ১১ টার থেকে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Releated