আগামী বইমেলায় সব ধরনের সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি মেয়র নাছিরের

Share the post

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন আয়োজিত অমর একুশে বইমেলা-২০২০’এ প্রায় ১৮ কোটি টাকার বই বিক্রি হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। মাত্র ২০ দিনের মেলায় বই বিক্রির এ রেকর্ড চট্টগ্রামে বিগত সময়ের তুলনায় নিঃসন্দেহে অনেক বেশি বলে মন্তব্য করেন তিনি।

শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে মুজিব বর্ষে বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত অমর একুশে বইমেলা ২০২০’র সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন একথা বলেন।

সিটি মেয়র বলেন, এবারের মেলায় বই বিক্রির এ রেকর্ড প্রজন্ম সমাজের বই প্রীতির অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। নতুন প্রজন্ম যে আবার বইমুখী হচ্ছে এটিই বড় প্রমাণ। সমাজে নতুন পাঠক তৈরি হচ্ছে, এতে করে লেখকও তৈরি হচ্ছে। মেলার এমন সফলতায় সৃজনশীল প্রকাশকরাও নতুন অনুপ্রেরণা পাচ্ছেন। এ অনুপ্রেরণায় আমিও আন্তরিকভাবে অনুপ্রাণিত।

আগামী বইমেলায় সকল ধরনের সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেন, আগামী বারের মেলা হবে নতুন মেয়রের নেতৃত্বে। মেলার জন্য সিজেকেএস বরাদ্দকৃত মাঠের অনুমতি আমার পক্ষ থেকে অব্যাহত থাকবে। মেলা আয়োজনে নতুন মেয়রকে সকল ধরনের সহযোগিতা সমর্থন অব্যাহত রাখবেন বলে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি।

মেয়র বলেন, বিদায় প্রকৃতির অমোঘ নিয়তি। একদিন সাজানো গোছানো সমস্ত আয়োজন ছেড়ে এ পৃথিবী থেকেও বিদায় নিতে হবে। আমাদেরকে গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে এ পৃথিবী থেকে বিদায় নেয়ার মানসিকতা ধারন করতে হবে। মেয়র অমর একুশে বইমেলা সফল ও সার্থক করার নেপথ্য শক্তি চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদ, চট্টগ্রামের সাহিত্য-সাংস্কৃতিক সংগঠন, সংবাদপত্র সম্পাদক, গণমাধ্যমকর্মী, লেখক, শিক্ষাবিদ, মুক্তিযোদ্ধা, গবেষকসহ সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এবারের অমর একুশে বইমেলা উপলক্ষে ১১ কৃতিজনকে জাতীয় জীবনে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখায় একুশে স্মারক সম্মাননা পদক এবং ৪ জন সাহিত্যসেবীকে সাহিত্য পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। একই সাথে ৪টি প্রকাশনা সংস্থাকে সেরা স্টলের পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। সেরা স্টলে প্রথম হয়েছে অক্ষরবৃত্ত, কুঁড়েঘর দ্বিতীয় এবং চন্দ্রবিন্দু ও পেন্সিল প্রকাশনা যৌথভাবে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে।

অমর একুশে বইমেলা কমিটির আহ্বায়ক কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউকের সভাপতিত্বে ও কংকন দাশের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো সামসুদ্দোহা, সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদ সভাপতি মহিউদ্দিন শাহ আলম নিপু, সম্পাদক জামাল উদ্দিন, অমর একুশে বইমেলা কমিটির সদস্য সচিব চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া বক্তব্য রাখেন।

এসময় অমর একুশে বইমেলা কমিটির সমন্বয়ক চসিক সমাজকল্যাণ কর্মকর্তা উপ-সচিব আশেক রসুল চৌধুরী টিপুসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, কর্মচারী, সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদ নেতৃবৃন্দ, লেখক, সাংবাদিক, মেলায় আগত পাঠক, দর্শনার্থী উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Releated